প্রাকৃতিক সপ্তাশ্চর্য নির্বাচনে সুন্দরবনকে ভোট দিন প্রাকৃতিক সপ্তাশ্চর্য নির্বাচনের সর্বশেষ তালিকায় সুন্দরবনের অবস্থান এখন শীর্ষে !

18560 সফটওয়্যার দিয়ে ১০ সেকেন্ডে একটি YAHOO ID বানান !!!!!

হিমালয় থেকে সুন্দরবন, হঠাৎ বাংলাদেশ” বিখ্যাত সেই গণসংগীতের সুর আজও কানে বাজে। ১৯৭১ এর মুক্তিযুদ্ধের নয় মাস এদেশের আপামর জন সাধারনের প্রত্যক্ষ অংশ গ্রহনে বিজয় ছিনিয়ে আনে লাল সবুজের পতাকা সমৃদ্ধ বাংলাদেশ। এই বাংলাদেশের শেষ প্রান্তে রয়েছে পৃথিবীর সপ্তাশ্চর্য প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহন করা সেই সুন্দরবন।
বিশ্বের বৃহত্তম ম্যানগ্রোভ তথা কাদাপানির বন সুন্দরবন বিশ্বের সপ্তাশ্চর্যের মধ্যে এক নম্বর স্থান পাওয়া উচিত এবং চলতি প্রতিযোগিতায় তা যোগ্যতম দাবিদার। সুন্দরবন পৃথিবীর বৃহত্তম জোয়ারবিধৌত গরান বনভূমি। এই বনের বর্তমান আয়তন প্রায় ১০ হাজার বর্গকিলোমিটার। বিগত শতকেও এর আয়তন ছিল প্রায় ১৭ হাজার ৭০০ বর্গকিলোমিটারেরও বেশি। মানুষের আগ্রাসনে বর্তমানে সুন্দরবন সঙ্কুচিত হয়ে এসেছে। বনের দুই-তৃতীয়াংশ বাংলাদেশের, বাকিটা প্রতিবেশী রাষ্ট্রের। এখানে বিরল প্রজাতির প্রায় ৪৪০টি রয়েল বেঙ্গল টাইগার রয়েছে এর মধ্যে ১২১টি পুরুষ, ২৯৮টি স্ত্রী, ও ২১টি বাচ্চা বাঘ, ৩০ হাজার হরিণ রয়েছে। হাঙ্গর, কুমির, বানর, নানা প্রজাতির পাখি, পতঙ্গ, অজগর সাপসহ তিন হাজার প্রজাতির উদ্ভিদ, ২১৭ প্রজাতির পাখি, ১৪ প্রজাতির জলজ প্রাণী, ৪২ প্রজাতির বন্যপ্রাণী এবং দুই হাজার ১০ প্রজাতির মাছ রয়েছে।

১৮৭৫ সালে সুন্দরবনকে সংরক্ষিত বন হিসেবে ঘোষণা দেয়া হয়। ১৯৭৭ সালে সুন্দরবনকে ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ বা বিশ্ব ঐতিহ্য উত্তরাধিকার হিসেবে ঘোষণা দেয়া হয়। এই সুন্দরবন প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে প্রায় ছয় লাখ লোকের জীবিকার উৎস। এখান থেকে মধু সংগ্রহ করে, মাছ ধরে, জ্বালানি সংগ্রহ করে, গোল পাতা সংগ্রহ ও বিভিন্ন পেশাই নিয়োজিত থেকে এখানকার মানুষ জীবিকা নির্বাহ করছে। বিগত সিডর ও আইলায় বেশ ক্ষতিগ্রস্ত হলেও সুন্দরবন দ্রুত প্রাকৃতিক শক্তি নিয়ে ঘুরে দাঁড়িয়েছে, ঘুরে দাঁড়িয়েছে সেখানকার মানুষগুলিও। এ যেন আর এক মুক্তিযুদ্ধের বিজয়।

সম্প্রতি সুন্দরবনকে প্রাকৃতিক সপ্তাশ্চর্য নির্বাচনে আমরা যখন ভোটযুদ্ধে প্রচার বিপ্লবে মুখরিত, আমাদের লক্ষ্য যেমন করেই হোক ছিনিয়ে আনতে হবে পৃথিবীর জীববৈচিত্র্যের সৌন্দর্যের রানীর মুকুট।

সুন্দরবন এর সুন্দরী গাছ
বাংলায় “সুন্দরবন”-এর আক্ষরিক অর্থ “সুন্দর জঙ্গল” বা “সুন্দর বনভূমি”। সুন্দরী গাছ থেকে সুন্দরবনের নামকরণ হয়ে থাকতে পারে, যা সেখানে প্রচুর জন্মায়। অন্যান্য সম্ভাব্য ব্যাখ্যা এরকম হতে পারে যে,এর নামকরণ হয়তো হয়েছে “সমুদ্র বন” বা “চন্দ্র-বান্ধে (বাঁধে)” (প্রাচীন আদিবাসী) থেকে।

 

তবে সাধারণভাবে ধরে নেয়া হয় যে সুন্দরী গাছ গাছ থেকেই সুন্দরবনের নামকরণ হয়েছে । তবে উপরের ছবিটি সুন্দরী গাছ নয় ।

”Living with Tides and Tigers” বইটির প্রচ্ছদ। Gertrud ও Helmut Denzau এবং Elisabeth ও Rubaiyat Mansur ২০ বছর ধরে এই চারজন ফোটো চিত্রগ্রাহকের নিরলস শ্রমে সৃষ্ট এই বইটির মধ্যে সুন্দরবনের যে সব চমকপ্রদ দৃশ্য আছে তা আর কোনখানে হয়তো পাওয়া যাবে না। কেন এই বইটির কথা উল্লেখ করলাম? বইটি প্রমাণ করে যে সুন্দরবন নিয়ে আমরা এখন আবার আগ্রহী হয়ে উঠছি।

নিঃসন্দেহে সুন্দরবন ধীরে ধীরে আবার আমাদের মনে স্থান করে নিচ্ছে। বিশ্বায়নের যুগে যেখানে সবকিছুই সবকিছুর সঙ্গে যুক্ত সেখানে সুন্দরবনেকে আমরা আবার নতুন করে দেখতে চাইছি।

‘সুন্দরবনে নীল ঘাড় ওয়ালা মাছরাঙারও দেখা মিলে” সুন্দরবনের বাস্তুসংস্থান মৌলিক প্রকৃতির এবং যা বন্য প্রাণীর বিশাল আবসস্থল। বন্য প্রাণীর সংখ্যা এবং এর লালনক্ষেত্রের উপর মানুষের সম্পদ সংগ্রহ ও বন ব্যবস্থাপনার প্রভাব  অনেক .।

Sundarbans India Bangladesh1 300x225 Sundarbans India Bangladesh2008 সালের হিসেব মতে, সুন্দরবন প্রায় ৫০০ রয়েল বেঙ্গল টাইগার বাঘের আবাসস্থল যা বাঘের একক বৃহত্তম অংশ । এক মাত্র সুন্দরবনের বাঘই লবনাক্ত এলাকায় অভিযোজন করে টিকে আছে। একটি বনে এত বেশি বাঘ আর কোথাও নেই। তবে সচেতনতা কম থাকায় প্রতি বছর বাঘের আক্রমনে ২৫ থেকে ৪০ জন মানুষ মারা যায়। অন্য দিকে লোকালয়ে এসে মানুষের হাতে মারা পড়ে দুই থেকে তিনটি বাঘ।

এসব তথ্য সম্প্রতি বাঘ রক্ষার বিশ্বসভা রাশিয়ায় বাংলাদেশের পক্ষ হতে উপস্থাপিত করা হয়। বাঘের অভায়ারণ্যে চারপাশ ঘেরা বান্ধবগড়ে , মানুষের উপর এমন আক্রমণ বিরল। শুধু বাঘই যে মানুষ মারছে তা নয়, কিছু দুষ্ট চক্র বাঘের হাড় গোড় সহ চামড়া পাচার করার জন্য বাঘকে হত্যা করছে। (কেন এতো অত্যাচার আজ এদের উপর এরা মানুষ এর কি ক্ষতি করেছে ???

800px Sundarbans 300x199 800px Sundarbansউপগ্রহ থেকে তোলা ছবিতে বনের সংরক্ষিত এলাকা দেখা যাচ্ছে। গাড় সবুজ রঙে সুন্দরবন দেখা যাচ্ছে যার উত্তর দিকে ঘিরে আছে হালকা সবুজ রঙের কৃষি জমি, তামাটে রঙে দেখা যাচ্ছে শহর এবং নদীগুলো নীল রঙের।পুরো পৃথিবীর মধ্যে সর্ববৃহৎ তিনটি ম্যানগ্রোভ বনাঞ্চলের একটি হিসেবে গঙ্গা অববাহিকায় অবস্থিত সুন্দরবনের বাস্তুসংস্থান যথেস্ট জটিল। দুই প্রতিবেশি দেশ বাংলাদেশ এবং ভারত জুড়ে বিস্তৃত সুন্দরবনের বৃহত্তর অংশটি ( ৬২% ) বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিম দিকে অবস্থিত।

প্রকৃতির এই বিশাল সম্ভার কখনোই একেবারে পুরোপুরি মেলে দেয় না নিজেকে। সুন্দরবন সারা বাংলাদেশ কে তুলে ধরতে পারে
সুন্দরবনের বিজয় মানে বাংলাদেশের বিজয় আর বাংলাদেশ এর বিজয় , আমার মাতৃভূমি বড় বিজয়

5312021604 c4f4dbf347 300x200 5312021604 c4f4dbf347কে বলে তুমি পারবে না , প্রাকৃতিক সপ্তাশ্চর্য নির্বাচনে ,তুমি হেরে গেলে যে আমরাও হেরে যাব !!!

Fishing boats in Sundarbans1 300x199 Fishing boats in Sundarbansসুন্দরবনের মাছ ধরার নৌকা নৌকা ভ্রমনে বেরুলে আপনি হরিণ সহ হরিণের বাচ্চাদেরকে দেখতে পারেন, সাথে বাঘের দেখাও মিলতে পারে। সুন্দরবনের আরো ছবি দেখুন এইখানে

আজ যদি সুন্দরবন হেরে যায়। তবে তাঁর জন্য আমরা দায়ী থাকবো । আমরা প্রযুক্তি কে হাতের কাছে থেকেও ভোট দেই না । ভাবি আমি একটা ভোট দিলাম আর আমার কাজ শেষ ।

১৬ কোটি বাঙালি আজ সবাই কি ভোট দিতে পেরেছে ???বাংলাদেশে এখনও অনেক অনেক গ্রামে বিদুৎ ও ইন্টারনেট এর আলো বা প্রযুক্তির ছোয়া নেই !!! তাহলে মানুষ জানবে কি ভাবে ??? আজও অনেক মানুষের ঠিক মত ২ বেলা আহার জুটে না । আজও একটি ছোট শিশু রাতের বেলায় ক্ষুধার জ্বালায় কাঁদতে কাঁদতে মায়ের কোলে ঘুমিয়ে পরে । সকল কাজ শেষ করে ,আমরাও ঠিক একদিন এইভাবে মায়ের কোলে ঘুমিয়ে যাব । তবে আমরা মায়ের বুকে ফিরে যাবার আগে মাকে একটু কি বিজয়ের আনন্দ দিতে পারব না ???

5318528483 21f355452f 300x199 5318528483 21f355452fইন্টারনেটের এর মাধ্যমে ভোট দিন সুন্দরবন কে প্রাকৃতিক সপ্তাশ্চর্য নির্বাচনের সবশেষ তালিকায় সুন্দরবনের অবস্থান এখন আট নম্বরে। প্রাকৃতিক সপ্তাশ্চর্য নির্বাচনের ২৮টি স্থানের মধ্যে বাদ পড়বে ২১টি স্থান। আর বাকি সাতটি স্থান নির্বাচিত হবে প্রাকৃতিক সপ্তাশ্চর্য হিসেবে।অনলাইনে এবং ফোনে ভোট প্রদানের মাধ্যমেই নির্বাচনটি অনুষ্ঠিত হচ্ছে। আগামী ১১ নভেম্বর ২০১১ পর্যন্ত ভোট দেওয়া যাবে। আসুন সবাই মিলে আর একটি যুদ্ধ জয় করি। বিশ্বের সপ্তাশ্চর্যের মধ্যে সুন্দরবনকে এক নম্বর স্থানে নিয়ে আসার জন্য ।

জেনে নিন অনলাইনে বা ইন্টারনেটে সুন্দরবন কে কিভাবে ভোট দিতে হবে।

উপরেরে ৫ টি কে ভোট দিবেন না । এই গুলো সুন্দরবনের এর আগে আছে !!! এই সব সপ্তাশ্চর্য কে পিছনে ফেলতে হবে আমাদের !!!!

http://www.new7wonders.com/ ক্লিক করুন তারপর নিচের পেজ টা শো করবে ।

নিচের ছবির মত সুন্দরবন সহ ৭টি তে টিক দিন।Create new account option এ আপনার নাম ও ইমেইল ঠিকানা সহ লিখুন এবং  Proceed To Vote এ ক্লিক করুন। একটা ইমেইল দিয়ে একবার ই ভোট দেয়া যাবে।  SEND YOUR VOTE ক্লিক করুন

ভোট দেয়ার পর এইরকম একটি কথা আসবে
Thanks for voting, your vote will be processed within the next 10 minutes. আপনাকে ধন্যবাদ জানানো হবে এবং আপনার ইমেইল চেক করতে বলা হবে।

এবার আপনার ইমেইল এ লগিন করুন তারপর ইমেইল এ ঢুকে Confirmation Link

এ ক্লিক করুন। আজ আমি আমার বাবার নামে ভোট দিয়েছিলাম তখন Confirmation Link ইনবক্স এ পাঠানো হয় নাই । তাই আপনারা সবাই spam বক্স এ পাবেন Confirmation Link
নিচের ছবির মত দেখাবে আপনি যে ৭ টি প্রাকৃতিক সপ্তাশ্চর্য ভোট দিয়েছিলেন আপনার
ভোট দেয়া শেষ !!!! কত সোজা তাই না !!!!

 

আন্তর্জাতিক ফোনের মাধ্যমে ভোট প্রদান

দেশের সকল টেলিফোন ও মোবাইল অপারেটরদের বিনামূল্যে ভোট প্রদানের সুবিধা সৃষ্টির নির্দেশ দেয়া হয়েছে। প্রতিটি সাইবার কাফেতে বিনামূল্যে সুন্দরবনকে ভোট প্রদানের সুযোগ রাখার ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ করা হয়েছে। +৪৪ ২০ ৩৩৪ ৭০৯০১ টেলিফোন নম্বরটি ইকোনমিক আইএসডি হিসাবে অনত্মভুর্ক্ত করা হয়েছে। পরবর্তীতে এটি টোল ফ্রি করা হবে।

১৯৭১ সালে আমরা এই যুগের কেউ (৪০ বছর এর নিচে) মুক্তিযুদ্ধ দেখি নেই বা করি নেই , না দেখতে পেয়েছি মুক্তিযুদ্ধের বিজয় উল্লাস । সুন্দরবনকে ভোট দিয়ে আমরা সেই বিজয় এনে দিতে পারি । তাহলে অনেক বিদেশীরা আসবে একটি বার এর জন্য বাংলাদেশের সুন্দরবন কে দেখার জন্য , বাংলাদেশের অথনৈতিক দিক দিয়ে অনেক উনতি হবে । বিশ্বের দরবারে আমরা মাথা উচু করে দাঁড়াতে পারবো গর্ব এখন করি আরও করে বলবো আমি বাঙালী , আমার মাতৃভূমি বাংলাদেশ ।

সারা বিশ্ব চিনবে নতুন করে আমাদের এই হল সেই বাংলাদেশ !!! কবি জীবনানন্দ দাশ কবিতার ভাষায় বলেন আবার আসিব ফিরে ধানসিঁড়িটির তীরে‐ এই বাংলায় হয়তো মানুষ নয়‐ হয়তো বা শাঁখচিল শালিকের বেশে,হয়তো ভোরের কাক হয়ে এই কার্তিকের নবান্নের দেশে কুয়াশার বুকে ভেসে একদিন আসিব কাঁঠাল ছায়ায়।
আমার মাতৃভূমি বাংলাদেশ কে এক নজরে চেয়ে দেখছি আর ভাবছি , ১৯৭১ সালে এই বাংলা মায়ের জন্য লাখ শহীদ এর রক্তে পাওয়া আমাদের এই স্বাধীনতা । ৫২ এর ভাষা আন্দলনের ,আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি । তাই আজ আমরা বাংলা ভাষাই কথা বলি ।আমার শহীদ ভাই আজ রক্ত দিয়ে জীবন দিয়েছে দেশ এর মাটিতে তাঁরা আজ মরেও অমর আমদের মাঝে ।

লিখছি আর ভাবছি জন্মভূমি কে আমি কি দিয়েছি ??? ”আমার এই মাতৃভূমি মায়ের জন্য আমি কি করেছি ?

আজ মায়ের জন্য করবো না কবে করবো আমি ??? মা তোমার জন্য সব কিছু করতে পারি আমি , আমি যে মা তোমারি সন্তান !!! আমি যে তোমার কোলে শেষ ঘুম ঘুমাবো ”

লিখেছেনঃ

M.s. Polash

Zakir Hossain

অনেক অনেক ধন্যবাদMohammad Rony Mazumder ভাই 

Khaled Mahmud Khan

ধন্যবাদ জানাই

পিসি হেল্পলাইন বিডি (বাংলাদেশ) এর কন্ট্রিবিউটর দের

“এই লেখাটা আমি পৃথিবীর সব মা কেসর্গ করলাম”

44 thoughts on “প্রাকৃতিক সপ্তাশ্চর্য নির্বাচনে সুন্দরবনকে ভোট দিন প্রাকৃতিক সপ্তাশ্চর্য নির্বাচনের সর্বশেষ তালিকায় সুন্দরবনের অবস্থান এখন শীর্ষে !

  1. Zakir Hossain বলেছেন:

    পলাশ ভাইয়ের লেখায় প্রাণ আছে, আর সেই লেখা আমাদের ঘুমিয়ে থাকা দেশপ্রেমকে জাগিয়ে তুলেছে, আসুন সবাই মিলে এই আহবানে সাড়া দিয়ে, আর একটি বিজয় ছিনিয়ে আনি। ধন্যবাদ পলাশ ভাই।

    Like

  2. Raffiuzzaman Elip বলেছেন:

    পোষ্ঠটা যে অসাধারন হয়েছে তাতে কোন সন্দেহ নেই,এইরকম পোষ্ঠ সমস্ত দেশের সমস্ত ওয়েবসাইটেই থাকা দরকার ,অন্তত দেশের স্বার্থে, আমি মনে করি দেশের প্রতি বিন্দু মাত্র ভালোবাসা থাকলে দেশের জন্য এই সামান্য কাজ টুকু করে দেশকে অসামান্য উপকার করা দরকার।ধন্যবাদ সেই মহান ব্যক্তিকে যিনি সুন্দর এবং কাজের এই পোষ্ঠটি আমাদের সামনে উপস্থাপন করছেন।৭টি ভোট করলাম আরো করব, দ্রুত ভোটের কাজ সম্পন্ন করতে এই সাইটটি খুবই কাজের http://www.yopmail.com/en/ ,২ সেকেন্ড সময় লাগে মেইল তৈরি করতে, আর ৪-৫ সেকেন্ড সময় লাগে মেইল চেক করতে,মেইল তৈরি করতে Random Email Address এ ক্লিক করুন,দেখুন মেইল আইডি তৈরি হয়ে গেছে,এভাবে অসংখ্য আইডি খুলে অসংখ্য ভোট করতে পারবেন,আর মেইল চেকের জন্য Check Inbox এর ঘরে মেইল আইডি দিয়ে এন্টার প্রেস করুন, তো আর দেরি কেন আসুন সবাই ঝাপিয়ে দেশের সন্মানে, ভোটের যুদ্ধে।আবারও ধন্যবাদ পলাশ ভাইকে অসম্ভব সুন্দর পোষ্ঠটি করার জন্য।

    Like

  3. খালেদ মাহমুদ খান বলেছেন:

    এই পোস্ট অসাধারন পোস্টটির জন্য পলাশ ভাইকে ধন্যবাদ।আমরা সবাই ভোট দেবো এবং অন্যকে ভোট দিতে অনুপ্রানিত করবো।মাতৃভূমিকে বিজয় এনে দেবো ইনশাল্লাহ্।

    Like

  4. সুমন আহমেদ বলেছেন:

    পোষ্টাটি অসাধারন। তবে আমার কাছে বেশি অসাধারন লাগছে ছবি গুলো! নিজের চোখকে যেন বিশ্বাস করতে পারছি না। আমাদের বাংলাদেশ এত সুন্দর জানা ছিলো না। ধন্যবাদ পলাশ ভাইকে এত সুন্দর একটা লেখা উপহার দেওয়ার জন্য।

    Like

  5. Sheikh Nazmul Hasan বলেছেন:

    অনেকদিন পর আজ আবার আবেগে কাঁদলাম পলাশ ভাই এর পোস্ট টা পড়ে। আমার অনেকগুলো মেইল আইডি কিন্তু কখনো সেভাবে ভাবিনি সবগুলো থেকে ভোট দেয়া প্রয়োজন। অনেক বড় অপরাধ করতে যাচ্ছিলাম। আমার দেশের প্রতি ভালোবাসার অনুভুতিটুকু পুনর্জন্ম দান করার জন্য আপনার প্রতি চির কৃতজ্ঞ পলাশ ভাই। আমি আর কিছু বলতে চাইনা …………।

    Like

  6. ZAKIR HOSSAIN বলেছেন:

    আমরা আর একটি বিজয়ের দিকে এগিয়ে চলেছি, যারা সুন্দরবনকে ভোট দিয়ে এ অসামান্য বিজয়ের পথের দিকে অগ্রসর করছেন, তাদের প্রতি ধন্যবাদ।

    Like

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s